কোভ্যাক্স থেকে ১ কোটি ৯ লাখ টিকা পাচ্ছে বাংলাদেশ

আগামী জুন মাসের আগে কোভ্যাক্স থেকে ১ কোটি ৯ লাখ ৮ হাজার টিকা পাবে বাংলাদেশ। কোভ্যাক্সের আওতায় বিশ্বজুড়ে বিনামূল্যে টিকা সরবরাহের একটি পরিকল্পনা গতকাল মঙ্গলবার (০২ মার্চ) প্রকাশ করা হয়েছে। এতে দেখা গেছে,

আগামী জুনের আগে যে সব দেশ টিকা পাবে তার মধ্যে বাংলাদেশ আছে ৪ নম্বরে। এ ছাড়া অন্যদেশগুলো হলো নাইজেরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, পাকিস্তান ও ব্রাজিল। আর আগামী মে মাসের শেষ নাগাদ বিশ্বের ১৪২টি দেশে ২৩ কোটি ৮২ লাখ ডোজ টিকা সরবরাহ করবে কোভ্যাক্স। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী কোভাক্স কর্মসূচির আওতায় ডব্লিউএইচও বিশ্বব্যাপী

কোভিড -১৯ ভ্যাকসিনের প্রায় দুইশ’ কোটি ডোজ বছরের শেষের দিকে সরবরাহ করার লক্ষ্য নিয়েছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই কর্মসূচিটির লক্ষ্য হলো বিশ্বের সমস্ত দেশগুলির মধ্যে ভ্যাকসিনগুলি সুষ্ঠুভাবে ভাগ করে দেওয়া। ডব্লিউএইচও ও ইউনিসেফ জানিয়েছে, কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনগুলির প্রথম চালানের একটি অংশ নিম্ন এবং মধ্যম আয়ের কয়েকটি দেশে দেওয়া হবে।তালিকায় এর পরে রয়েছে- ইথিওপিয়া, কঙ্গো গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র, মেক্সিকো, মিশর ও ভিয়েতনাম। ইরান, মিয়ানমার, কেনিয়া ও উগান্ডাও টিকা পাওয়ার তালিকায় রয়েছে। প্রতিটি দেশ ৩০ লাখের বেশি টিকা

পাবে। মে মাসের শেষের দিকে ভারত কোভ্যাক্সের টিকা সবচেয়ে বড় প্রাপক হতে পারে, তবে মঙ্গলবার বিতরণ তালিকা প্রকাশের আগে এর বরাদ্দ চূড়ান্ত হয়নি। প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপদেশ টুভালু ৪ হাজার ৮০০ ডোজ টিকা পাবে। নাউরো ও মোনাকো পাবে মাত্র ৭ হাজার ২০০ ডোজ টিকা। কোভ্যাক্স কর্মসূচিতে এ বছর শেষ হওয়ার আগে ৯২টি দরিদ্র দেশের ২৭ শতাংশ জনগণকে টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে। গত বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে কোভ্যাক্সের টিকা পেয়েছে আফ্রিকার দেশ ঘানা। এ সপ্তাহেই আরও ২০টি দেশে কোভ্যাক্সের টিকা পৌঁছানোর কথা। কিছু ধনী দেশ কোভ্যাক্সের টিকা বিতরণের তালিকায় ছিল। এর মধ্যে দক্ষিণ কোরিয়া ২২ লাখ ডোজ, কানাডা ১৬ লাখ,

সৌদি আরব ১৫ লাখ, সিঙ্গাপুর ২ লাখ ৪৫ হাজার ও নিউজিল্যান্ড ২ লাখ ১১ হাজার টিকা পাওয়ার কথা। কোভ্যাক্স কর্মসূচির আওতায় যেসব টিকা বিতরণ করা হবে তা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার অনুমোদিত হতে হবে। নোভাভ্যাক্স কোভ্যাক্সকে ১১০ কোটি ডোজ টিকা দেবে। সানোফি-জিএসকে, জনসন অ্যান্ড জনসনের সঙ্গেও কোভ্যাক্সের চুক্তি রয়েছে।

About Gazi Mamun

Check Also

ওয়াজ মাহফিলের কারণে বাড়ছে করোনা ভাইরাস: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

দেশের বিভিন্ন স্থানে ভ্রমণ, অনুষ্ঠান ও ওয়াজ মাহফিলে জনসামাগমের কারণে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *