ইসলামের জন্য প্রয়োজনে ক্রিকেট ছেড়ে দেবেন মঈন আলী

তিনি পুরোদস্তর ব্রিটিশ। তার জন্ম ও বেড়ে ওঠা ইংল্যান্ডের মাটিতে। ইংল্যান্ডের বয়সভিত্তিক ক্রিকেটও খেলেছেন। মূল দলে খেলছেন অনেক দিন হলো। ক্রিকেটীয় জীবনের বাইরে তিনি ধর্মপ্রাণ একজন মুসলমান। সম্প্রতি বিশ্বের

শীর্ষস্থানীয় গণমাধ্যম বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মঈন জানিয়েছেন, তার কাছে সব কিছুর আগে নিজের ধর্ম। আর প্রয়োজনে ইসলাম ধর্মের জন্য তিনি মুহূর্তে ক্রিকেট ছাড়তেও রাজি। ইংল্যান্ডের হয়ে ২৬টি টেস্ট, ৩৯টি ওয়ানডে ও ১৮টি টি-টোয়েন্টি

ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা আছে মঈনের। ২৯ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার বললেন, ‘আমার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো ধর্ম। এটা এমন একটি বিষয় যা আমাকে মুক্তি দেয়। সারা জীবন আমি এমনটাই চেয়েছিলাম। তরুণ বয়সে আমি ধর্ম থেকে দূরে ছিলাম। কিন্তু ১৮-১৯ বছর বয়সে আমি এমন জীবনযাপনের

সিদ্ধান্ত নিই। একমাত্র এই বিষয়টি আমাকে সবচেয়ে আনন্দ দেয়। ক্রিকেট গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়, কিন্তু ইসলামের মতো নয়। আগামীকাল যদি আমাকে ক্রিকেট ছেড়ে দিতে হয় তাহলে বিষয়টি আমার জন্য মোটেও কঠিন হবে না।’ মুসলমান হিসেবে একটি আলাদা দায়িত্ব নিয়ে নিয়ে ইংল্যান্ড দলে খেলেন উল্লেখ করে

বলেন, ‘আমার মনের মধ্যে একটা দায়িত্ব কাজ করে যে, আমি মুসলিম ও ব্রিটিশ-এশিয়ানদের প্রতিনিধিত্ব করছি। এটা একটি ইতিবাচক দিক। পারফরম করার সময় এটা আমার কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটা মাথায় রেখেই আমি সবার সঙ্গে আচরণ করি।’ ইংল্যান্ডে সংখ্যালঘু হিসেবে বসবাসের অভিজ্ঞতা নিয়ে মঈন আলী

বলেন, ‘এটা কঠিন। মনে হয় সবসময় পাহারায় আছি। এটা জীবনের অংশ। আশা করছি কঠিন সময় পার করে শেষ আলোটা দেখে যেতে পারবো। এর আগেও মুসলিমদের কঠিন সময় পার করতে হয়েছে। অন্য দেশে অন্য সম্প্রদায়ের মানুষেরও কঠিন সময় গেছে। এটা জীবনের অংশ।’

About Gazi Mamun

Check Also

কোভিড আক্রান্ত মুশফিকের বাবা-মা’কে আনা হচ্ছে ঢাকা

হঠাত করেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) থেকে বুধবার দুপুরে জানানো হয়, জিম্বাবুয়ে থেকে আজই দেশে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *