রমজানের আগেই বাড়ছে পেঁয়াজের দাম

রমজান শুরু হতে এখনো এক মাসের বেশি সময় বাকি। তবে এরইমধ্যে বাড়তে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম। রাজধানীর খুচরা ও পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের ঘাটতি নেই। তবু দাম কেন বাড়ছে, এর কোনো যৌক্তিক ব‌্যাখ‌্যা দিতে পারছেন না

ব্যবসায়ীরা। ক্রেতারা বলছেন, রমজানে দাম বাড়লে সমালোচনা হবে, এজন্য আগে থেকেই দাম বাড়াচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। রাজধানীর কয়েকটি খুচরা ও পাইকারি বাজার এবং ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবি) তথ্য বিশ্লেষণ করে দেখা গেছে, এক

কেজি ভালো মানের দেশি পেঁয়াজ কিনতে হচ্ছে ৫০ টাকায়। যদিও কিছু দোকানে ৪৫ টাকাতেও পেঁয়াজ বিক্রি করতে দেখা গেছে। সপ্তাহখানেক আগেও দাম ছিল ৪০ টাকা। আমদানি করা পেঁয়াজের দামও এক মাসের ব্যবধানে ১৫ টাকা বেড়েছে। টিসিবি’র বাজার বিশ্লেষণের তথ্য বলছে, এক মাসের ব্যবধানে দেশি পেঁয়াজের

দাম বেড়েছে ৩৫ দশমিক ৭১ শতাংশ। তবে, গত বছরের তুলনায় এখনো পেঁয়াজের দর কম আছে। ২০২০ সালে একই সময়ে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছে প্রায় ৭০ টাকায়। এ হিসেবে দাম কমেছে সাড়ে ৩৭ শতাংশ।রাজধানীর কারওয়ানবাজারে দেশি পেঁয়াজের আড়তদার আশরাফুল আলম বলেন, ‘স্থানীয় মহাজনরা

পেঁয়াজের দাম বাড়িয়ে দিচ্ছেন। এ কারণে বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।’ সেগুনবাগিচা কাঁচাবাজারে কেনাকাটা করতে আসা বেসরকারি চাকরিজীবী আরিফুল ইসলাম বলেন, ‘রোজা আসতে এখনো অনেক দেরি। অথচ চাল, তেল, পেঁয়াজ, মুরগি, চিনিসহ সবকিছুই দামই বাড়ছে।’

এদিকে, বাণিজ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, আসন্ন রমজান মাসকে সামনে রেখে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের পর্যাপ্ত মজুদ গড়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বেসরকারি পর্যায়ের পাশাপাশি বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অধীন টিসিবি’র মাধ্যমে পণ্য সরবরাহ করা হবে। রমজান মাসে কোনো পণ্যের ঘাটতি হবে না এবং দাম বাড়বে না।

About Gazi Mamun

Check Also

তিন খাত ছাড়া বিধিনিষেধে বন্ধই থাকছে গার্মেন্টসসহ শিল্প-কারখানা

খাদ্যপণ্য, চামড়া ও ওষুধ খাত ছাড়া গার্মেন্টসসহ অন্যান্য শিল্প-কারখানা ১৪ দিনের কঠোর বিধিনিষেধের মধ্যে বন্ধই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *