বাংলাদেশ সীমান্তে ২শ বছরের পুরনো মসজিদ পুণ: নির্মাণে বিএসএফের বাধা, উত্তেজনা

সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার গজুকা’টা সীমান্তে মসজিদ নির্মাণে বিএসএফ বাঁধা দেওয়ায় সীমান্তে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। শুক্রবার(১৯ মার্চ) মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলা সীমান্তে গুলি করে বাংলাদেশী যুবককে হত্যা করার পর এবার

বিয়ানীবাজারে ২শ বছরের পুরনো মসজিদ পুণ: নির্মাণে বাঁধা প্রদান করেছে ভারতের সীমান্ত রক্ষা বাহিনী বিএসএফ।
এ ঘটনায় সিলেটের বিয়ানীবাজার উপজেলার গজুকাটা সীমান্ত এলাকায় অনেক উত্তেজনা বিরাজ করছে। বিএসএফ সীমান্ত এলাকায় ব্যাংকার খনন করে মহড়া দিলে পাল্টা প্রস্তুতি নিয়েছে

বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি। এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। আতংকিত অনেকে ইতোমধ্যে পরিবার নিয়ে বাড়ী ছেড়ে অন্যত্র অবস্থান নিয়েছেন। জানা যায়, উপজেলার গজুকাটা সীমান্ত এলাকার ১৩৫৭ নং পিলারের ভেতরে বাংলাদেশ অংশে গজুকাটা গ্রামের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ২শ

বছরের পুরনো পাকা ভবনটি অত্যন্ত ঝুঁ’কিপর্ণ হওয়ায় এলাকাবাসী তা পুণ: নির্মাণের ব্যবস্থা করেন। দুবাগ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য আফতাব উদ্দিন মুঠোফোনে বলেন, ২০১৮ ইং সনে মসজিদ নির্মাণের সিদ্ধান্ত গ্রামবাসী নেওয়ার পর তারা বিজিবির সহায়তা চান। তৎকালীন বিজিবি-৩২ ব্যাটলিয়ানের কমান্ডার বিএসএফর

কমান্ডারের সাথে বৈঠক করেন। বৈঠকে মসজিদ নির্মাণের সিদ্ধান্ত হলে তারা নির্মাণ কাজ শুরু করেন। কিন্তু নির্মাণ কাজের নিচ অংশের পিলার-লিন্টারসহ আনুষাঙ্গিক কাজ শেষে ছাদ ঢালাইয়ের জন্য প্রস্তুতির এক পর্যায়ে বিএসএফ সরাসরি বাংলাদেশ সীমান্তে প্রবেশ করে মসজিদ নির্মাণ কাজে বাধা প্রদান করে। এদিকে দীর্ঘ ৩ বছর পর গত সপ্তাহে বিজিবি-৫২র সাথে বিএসএফের বৈঠকে

মসজিদটি পুণ:নির্মাণের বিষয়ে আলোচনা হয় এবং তা পুণ:নির্মাণ করতে বিএসএফ বাঁধা প্রদান করবে না বলে আশ্বস্থ করে। কিন্তু এলাকাবাসী প্রবাসীদের সহযোগিতা নিয়ে ম’সজিদ নির্মাণের সকল প্রস্তুতি নিয়ে কাজ শুরু করলে শনিবার বিকেলে বিএসএফ তাতে বাঁধা প্রদান করে। সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, এ নিয়ে বিজিবি’র পক্ষ থেকে পতাকা বৈঠকের আহবান জানালেও বিএসএফ তাতে পাত্তা না দিয়ে সীমান্ত এলাকায় শক্তি বৃদ্ধির পাশাপাশি ব্যাংকার খনন করে শক্ত অবস্থান নেয়। বিজিবি পাল্টা অবস্থান নিয়ে তাদের

জবাবের প্রস্তুুতি নিয়ে সীমান্ত এলাকায় অবস্থান করছে। দুবাগ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম বলেন, ২শ’ বছরের প্রাচীন এই মসজিদ নির্মাণ কাজে আমাদের সহযোগিতা রয়েছে। বিএসএফ মসজিদ নির্মাণ কাজে বাধা প্রদান ও নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেওয়ার সংবাদ আমাদেরকে ম’র্মাহত করেছে। বিজিবি ৫২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে: কর্ণেল মো: শাহ আলম সিদ্দিকি জানিয়েছেন, ভারতীয় বাহিনী জিরো লাইনের ১৫০ গজের ভেতরে প্রবেশ করে কোন ধরণের বাঁধা প্রদান করতে পারে না। তারা সীমান্ত আইন লংঘন করে ২শ বছরের পুরনো মসজিদ

পুণ:নির্মাণের বাঁধা প্রদান করেছে।বিএসএফ এখানে বাঁ’ধা দিয়ে অন্যায় করছে। তিনি আরোও বলেন, দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার স্বার্থে যে কোন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করতে আমরা প্রস্তুত রয়েছি। তিনি জানান, গজুকা’টা সীমান্তসহ তাঁর আওতাধীন সকল এলাকায় বিজিবি’র শক্তি বৃদ্ধি করা হয়েছে।

About Gazi Mamun

Check Also

২৫ লাখ টাকা ফেরত দিয়ে প্রশংসায় ভাসছেন সেই ইউএনও

আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাড়ি নির্মাণের উদ্বৃত্ত টাকা সরকারি কোষাগারে ফেরত দিয়ে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন রংপুরের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *