আমাকে অবসর নিতে বাধ্য করা হয়েছিলঃ মাশরাফি

২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কা সফরে ওয়ানডে সিরিজের পর টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে টস করার সময় হুট করেই ঘোষণা এলো, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ছাড়ছেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। এমন খবরে উত্তাল হয়ে পড়ে দেশের ক্রিকেটের সমর্থকেরা

তবে মোটেও বিচলিত হতে দেখা যায়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি)। এরপর অবসর কিছুই বলেনি দুই পক্ষ।তবে অবসরের চার বছর পর বেসরকারি টেলিভিশনে ৭১ টিভিকে দেয়া সাক্ষাতকারে জানিয়েছেন, নিজে থেকেই নাকি বোর্ডের

চাপে হঠাৎ অবসর নিয়েছিলেন মাশরাফী। ‘ওই সফরে বোর্ডের সবাই উপস্থিত ছিল। কিন্তু আমি সহযোগিতা পাইনি কারো থেকে। ২০১১ বিশ্বকাপের আগে ডাক্তার ক্লিয়ারেন্স দেয়ার পরও আমাকে দলে নেয়া হয়নি।

২০১৭ সালে যখন অবসরে গেলাম তখন আমার পাশে কেউ ছিল না দেশের মানুষ ছাড়া।’ মাশরাফীর দাবি, শ্রীলঙ্কা সফরে টিম হোটেলে ওঠার পর তাকে সময়ও দেয়া হয়নি, ট্রাভেল টিশার্টটাও পরিবর্তন করার। অবস্থা এমন হয়েছিল, অবসর নিতে বাধ্য

হয়েছিলেন ওই সময়ে। ‘আমি যখন শ্রীলঙ্কায় হোটেলে যাই, আমি তখনও ট্রাভেল স্যুটও খুলিনি তার আগেই আমার সঙ্গে বৈঠকে বসে। ওই বৈঠকের পরই আমি ভাবি যে, কিছু একটা গোলমাল আছে। কেন? টি-টোয়েন্টি সিরিজটা যখন আসলো তখন ভাবলাম, সবার বিপরীতে থাকার প্রয়োজন নাই।’

About Gazi Mamun

Check Also

বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট দলে জায়গা পেলেন কুরআনের হাফেজ মহিউদ্দিন তারেক

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ খেলতে ভারত যাচ্ছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। মঙ্গলবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আফগান …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *