নায়ক ওয়াসিমের শেষ হাসি; বিঁধছে ভক্তের বুকে, ছবি ভাইরাল

ঢালিউডের ইতিহাসে এক উজ্জ্বল অধ্যায়ের নাম ওয়াসিম। দীর্ঘদিন অসুস্থতায় ভুগে শনিবার (১৭ এপ্রিল) দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। ১৯৫০ সালে জন্ম নেয়া এ অভিনেতার বয়স হয়েছিলো ৭১ বছর। এক শ্রেণীর

দর্শকের নয়নের মণি ছিলেন এই ড্যাশিং হিরো। বলা হয়ে থাকে, ‘ওয়াসিমের সিনেমা ফ্লপ করে না’। অর্থাৎ প্রযোজকের মুখে হাসি ফোটাতেন তিনি। সেই অপ্রতিদ্বন্দ্বী নায়কের শেষ হাসি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। গত ১৮ এপ্রিল ওয়াসিমের

একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। ছবিতে দেখা যায় হাসপাতালের বিছানায় হাস্যজ্জ্বল এই বরেণ্য অভিনেতাকে। মূলত এটিই এই অভিনেতার শেষ ছবি। ছবিটি তুলেছেন উপস্থাপিকা বুসরা চৌধুরী। বুসরা জানান, মৃত্যুর মাত্র ক’দিন আগে হাসপাতালে তিনি ওয়াসিমকে দেখতে যান।

সেসময় তিনি ছবিটি তোলেন। এর আগে তিনি ওয়াসিমকে অনুরোধ করেন হাসতে। তার আবদার ফিরিয়ে দেননি ওয়াসিম। তিনি অসুস্থতার শত কষ্ট ক্ষণিকের জন্য আড়াল করে হাসিমুখে ক্যামেরার দিকে তাকিয়েছিলেন। বুসরা দীর্ঘশ্বাস ফেলে বলেন,

জানতাম না, এ ছবিটি হবে ওয়াসিম ভাইয়ের জীবনের শেষ ছবি! ১৯৭২ সালে ঢাকাই সিনেমায় ওয়াসিমের অভিষেক হয় সহকারী পরিচালক হিসেবে ‘ছন্দ হারিয়ে গেলো’ চলচ্চিত্রে। নায়ক হিসেবে তার যাত্রা শুরু হয় মহসিন পরিচালিত ‘রাতের পর দিন’ সিনেমার মাধ্যমে। দিন যতই যেতে থাকে ওয়াসিমের জনপ্রিয়তা ততই

আকাশচুম্বী হয়। বাণিজ্যিক ঘরানার সিনেমার অপরিহার্য নায়ক হয়ে ওঠেন তিনি। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে রয়েছে ‘ছন্দ হারিয়ে গেলো’, ‘রাতের পর দিন’, ‘দোস্ত দুশমন’, ‘দি রেইন’, ‘রাজদুলারী’, ‘বাহাদুর, ‘মানসী’, ‘সওদাগর’,

‘নরম গরম’, ‘বেদ্বীন’, ‘ঈমান’, ‘লাল মেম সাহেব’ প্রভৃতি। ‘বেদ্বীন’, ‘ঈমান’, ‘মানসী’-এ সিনেমাগুলোতে তার অভিনয় ব্যাপক প্রশংসিত হয়।

About Gazi Mamun

Check Also

অভিনেতা মাহমুদ সাজ্জাদ মারা গেছেন

ছোট পর্দার অভিনেতা মাহমুদ সাজ্জাদ আর নেই। প্রায় দুই মাস আইসিইউতে ছিলেন তিনি। আজ ২৪ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *