যারা গরীবের ৫ কেজি চালের লোভ সামলাতে পারে না, তাদের রাজনীতি ছেড়ে ভিক্ষা করা উচিৎ: হাসিনা

এই ল,,কডাউন চলাকালীন অনেক অ’স’হা’য় মানুষদের খাদ্য সংকট দেখা দিচ্ছে। প্রধান’মন্ত্রী তাই ক’র্ম’হী’ন অসহায়দের আর্থিক স’হা’য়’তা বা ত্রাণ দিচ্ছেন। কিন্তু এখানেও দূ’র্ণী’তির শেষ নেই নিচ মহলের রা’জ’নী’তি-বিদদের।

তাই প্রধান’মন্ত্রী শেখ হা’সিনা বলেন, যারা গ’রীবের ৫ কেজি চা’লের লোভ সা’মলাতে পারে না, তাদের রা’জনীতি ছেড়ে ভিক্ষা করা উচিৎ আরও পড়ুন: ল‚,কডাউন চলাকালীন ক’র্ম’হী’ন প্রতি”টি পরিবার পাবে নগদ ৫০০ টা’কা।

ল,,কডাউন বাড়লে কর্মহীন প্রতি”টি পরিবার পাবে চাল, ডাল, তেলসহ নিত্যপণ্যের পাকেট। দু,,র্যোগ ব্য,,বস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণা;লয়ের মাধ্যমে এই সহায়তা পাবে তারা। মন্ত্রণা;লয় সূ’ত্রে এসব ত’থ্য জানা গেছে। সূ’ত্র জানায়, সাত দিনের ল,,কডাউনের কারণে যারা ক’র্ম’হী’ন হয়ে পড়বেন,

দেশের এই সব ক’র্ম’হী’ন মানুষের সহায়তায় সরকার ই’তো’ধ্যে ৫৭২ কোটি ৯ লাখ ২৭ হাজার টা’কা ব’রা’দ্দ দিয়েছে। যা এরই মধ্যে প্রতি”টি ইউনিয়ন প’রি’ষ’দ ও সিটি কপোরেশনের ওয়া’র্ডে ওয়া’র্ডে পৌঁছে গেছে। দেশের প্রায় এক কোটি ২৪ লাখ ৪১ হাজার ৯০০ পরিবারকে ভি’জি’এফ (ভালনারেবল গ্রুপ ফিডিং)

ক’র্ম’সূ’চির আওতায় এ আর্থিক সহায়তা দেওয়া হবে। তবে, কঠোর ল,,কডাউন সাত দিনের বেশি বাড়লে প্রতি”টি ক’র্ম’হী’ন পরিবারকে দেওয়া হবে খাবারের প্যা’কে’ট। এর মধ্যে থাকবে ১০ কেজি চাল, এক কেজি তেল, এক কেজি ডাল, চার কেজি আলু, এক কেজি লবণ। স’হা’য়’তার এই সব পণ্যপ্যা’কে’ট জনপ্রতিনিধিরা পৌঁছে দেবেন নিজ নিজ এলাকার তালিকা’ভুক্ত

ক’র্ম’হী’ন পরিবারে। দু’র্যো’গ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ ম’ন্ত্র’ণা’ল’য় সূ’ত্র জানিয়েছে, পরিবারপ্রতি ৪৫ টাকা কেজি দরে ১০ কেজি চালের স’ম’মূ’ল্য, অর্থাৎ কা,র্ড প্রতি ৪৫০ টা’কা হলেও ৫০ টা’কা বাড়িয়ে দেওয়া হবে ৫০০ টা’কা হারে। যা পাবে ক’র্ম’হী’ন প্রতিটি পরিবার। এটি করো’নাকালীন প্রথম উ’দ্যো’গ। জানা গেছে, দেশের ৬৪টি জে’লার ৪৯২টি উপজেলার জন্য ৮৭ লাখ ৭৯ হাজার ২০৩টি কার্ড এবং ৩২৮টি পৌরসভার

জন্য ১২ লাখ ৩০ হাজার ৭৪৬টি কার্ডসহ মোট এক কোটি ৯ হাজার ৯৪৯টি ভিজিএফ কা,র্ডের বিপরীতে ৪৫০ কোটি ৪৪ লাখ ৭৭ হাজার ৫০ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। পরিবার প্রতি ১০ কেজি চালের সমমূল্য, অর্থাৎ কা,র্ড প্রতি ৪৫০ টাকার সঙ্গে ৫০ টাকা বাড়িয়ে ৫০০ টাকা হারে আর্থিক স’হা’য়’তা দিতে

উপজে’লাগুলোর জন্য ৩৯৫ কোটি ৬ লাখ ৪১ হাজার ৩৫০ টাকা এবং পৌ’র’স’ভাগুলোর জন্য ৫৫ কোটি ৩৮ লাখ ৩৫ হাজার ৭০০ টাকা ব’রা’দ্দ দেওয়া হয়। যা এরইমধ্যে পৌঁ’ছে গেছে।

About Gazi Mamun

Check Also

হযরত ইবরাহিম (আ.)-এর কুরবানির দৃষ্টান্ত চিরকাল অনুসরণীয় হয়ে থাকবে: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, হযরত ইবরাহিম (আ.) মহান আল্লাহর উদ্দেশ্যে প্রিয়বস্তুকে উৎসর্গ করার মাধ্যমে তাঁর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *