শেরপুরে ৪০ দিন নামাজ পড়ে সাইকেল পুরস্কার পেল ৯ শিশু!

শেরপুরের নকলা উপজেলায় ৪০ দিনব্যাপী মসজিদে জামায়াতের সাথে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায়কারী ৯ জন শিশুকে পুরস্কার হিসেবে একটি করে বাই-সাইকেল পেলো। বুধবার (১২মে) সকালে উপজেলার ৩নং উরফা ইউনিয়নের উরফা

গ্রামে অবস্থিত “উরফা পূর্বপাড়া সাহের উদ্দিন মেম্বার বাড়ী সংলগ্ন জামে মসজিদ” প্রাঙ্গনে বিজয়ী ৭ জন শিশুকে একটি করে বাই সাইকেল এবং ২ জনকে সাইকেল সমমূল্য অর্থ তুলে দেন মসজিদ কমিটির সদস্যরা।

শিশুরা যাতে মসজিদে যেতে অভ্যস্ত হয়, নামাজের গুরুত্ব সম্পর্কে জানতে পারে এবং একত্ববাদ ও সমাজে পারস্পরিক ভ্রাতৃত্ববোধ প্রতিষ্ঠা করতে পারে এমন লক্ষকে সামনে রেখে উরফা গ্রামের আব্দুল লতিফ ওরফে লতি মিয়ার ছেলে সৌদি আরব প্রবাসী

পারভেজ হাসান এই ব্যতিক্রমধর্মী প্রতিযোগিতার আয়োজন করেন।
প্রতিযোগিতায় শর্ত ছিলো ৮-১২ বছর বয়সী শিশুদের স্থানীয় একটি মসজিদে গিয়ে জামায়াতের সাথে ৪০ দিন নামাজ আদায় করতে হবে। পুরস্কার হিসেবে তাদের প্রত্যেককে একটি করে বাই সাইকেল প্রদান করা হবে। প্রতিযোগিতায় সাড়া দিয়ে প্রথম দিকে

প্রায় ৪০-৪৫ জন শিশু নামাজ আদায় শুরু করলেও চূড়ান্ত পর্যায়ে ৯ জন শিশু বিজয়ী হয়েছে। স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গের উপস্থিতিতে বুধবার বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।
ব্যতিক্রমধর্মী এই আয়োজনের উদ্যোক্তা সৌদি আরব প্রবাসী পারভেজ হাসান গণমাধ্যমকে জানান, বর্তমান আধুনিক যুগে অধিকাংশ শিশুরাই মোবাইল, টিভি এবং ল্যাপটপের স্ক্রীনে

নিজেকে সীমাবদ্ধ করে ফেলছে। শিশুদের মোবাইল আসক্তি ভয়াবহ আকার ধারণ করায় বর্তমানে বেশিরভাগ শিশুদের মধ্যেই ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান পালনে অনীহা সৃষ্টি হয়েছে। তাই শিশুরা যাতে নিয়মিত মসজিদে যেতে অভ্যস্থ হয়, নামাজের ফজিলত সম্পর্কে জানতে পারে সেজন্য এই উদ্যোগ। এ বিষয়ে স্থানীয়রা জানান, এই প্রতিযোগিতার মাধ্যমে শিশুরা টানা চল্লিশ দিন মসজিদে এসে নামাজ আদায় করেছে এতে তারা মসজিদে আসতে জড়তা বা

অলসতা কেটে গেছে। জামায়াতে চল্লিশদিন টানা পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ায় শিশুরা নামাজে অভ্যস্ত, নামাজের প্রতি আগ্রহ বা ভালবাসা সৃষ্টি হয়েছে।

About Gazi Mamun

Check Also

দুই শত কেজি সোনা দিয়ে তৈরি হলো বিশ্বের বৃহত্তম কোরআন শরীফ

সৃষ্টি হলো এক অনন্য নজির, দুই শত কেজি সোনা দিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বড় পবিত্র কোরআন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *