পায়ে লিখেই শিক্ষকতা করেন আমিনুল!

জন্ম থেকেই দুই হাত নেই। মানে অকেজো, একেবারে লিকলিকে। হাঁটতেও পারেন না। হাঁটুতে ভর দিয়ে কোনরকমে চলাফেরা তার। এতসব প্রতিবন্ধকতা সত্ত্বেও দমে যাননি আমিনুল। গভীর অধ্যাবসায় নিয়ে দুই পায়ে লিখে পড়াশোনা

চালিয়ে গেছেন তিনি। ফলে পঙ্গুত্বকে পরাস্ত করে আজ তিনি শিক্ষক। পায়ে লিখে চার বছর ধরে বাধাহীনভাবে চালিয়ে যাচ্ছেন শিক্ষকতা নরসিংদীর মনোহরদী উপজেলার দু’হাত পঙ্গু আমিনুল (৪০) প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষায় ২০০০ সালে পায়ে লিখে অংশ

নিয়ে প্রথমে গণমাধ্যমকর্মীদের দৃষ্টি কাড়েন। সেই আমিনুল নিজের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় গভীর অধ্যবসায় নিয়ে পায়ে লিখে পড়াশোনা এগিয়ে নিয়েছেন। এভাবে এসএসসি ও এইচএসসি পাশ করে এখন রীতিমতো একজন পরিপূর্ণ শিক্ষক তিনি। উপজেলার মনতলা গ্রামে

তার বাড়ি। একটা নিতান্ত দরিদ্র পরিবারে জন্ম তার। তার ওপর জন্ম থেকেই দুই হাত সম্পূর্ণ অচল। দুই পাও প্রায় তাই। হাঁটুতে ভর দিয়ে খুব কষ্টকরভাবে চলাফেরা করতে হয় তাকে।
এতোসব প্রতিবন্ধকতাও তার জীবনের গতি থামাতে পারেনি।

ব্যাহতও হয়নি তেমন জীবনের কোনো ছন্দ। হাতের বিকল্প পায়ে লিখে লেখাপড়া শেষ করে পায়ে লিখেই শিক্ষকতা চালিয়ে যাচ্ছেন একটা কওমি মাদ্রাসায়। খিদিরপুর আফজালুল উলুম কওমী মাদ্রাসার ছাত্রদের বাংলা, ইংরেজি ও গণিতের শিক্ষক তিনি।

বেশ সুনামের সাথে চার বছর ধরে শিক্ষকতা করে যাচ্ছেন। ছোট মাদ্রাসা, বেতনও সামান্য। একটা প্রতিবন্ধী ভাতা ও মাদ্রাসার যৎসামান্য আয়ে স্ত্রী, দু’ছেলেসহ চারজনের সংসার চলা কঠিন। জমাজমি নেই একটুকুও। তবু আলাপকালে আমিনুল তার

অস্বচ্ছলতার কাঁদুনি গেয়ে শুনাননি। এ স্বল্প আয়ে কি করে সংসার চলে- এর জবাবে হাসলেন তিনি। আর নির্দ্বিধায় বলে দিলেন, আল্লাহ চালান। আজ সোমবার তার কর্মস্থলে বসে আলাপকালে সেখানে উপস্থিত মাদ্রাসার নাজেরা ক্লাশের ছাত্র পাড়াতলা গ্রামের

আনাস (১৩) তার শিক্ষক আমিনুলের শিক্ষকতার ভূয়সী প্রশংসা করে। সে জানায়, আমিনুল স্যার ভালো পড়ান। এ স্যারের কাছে পড়ে তার বেশ অগ্রগতি হয়েছে। আমিনুলের পঙ্গুত্ব নিয়েসে জানায়, এতে তাদের কোনো ক্ষতি হচ্ছে না।

তিনি ঠিকমতোই সব চালিয়ে যাচ্ছেন। আলাপ হয় মাদ্রাসার প্রধান আব্দুল বাতেন কুদরীর সাথে। তিনিও আমিনুলের শিক্ষকতার উপর সন্তুষ্টি জানিয়ে বলেন, ইংরেজিতে তিনি বেশ ভালো।

About Gazi Mamun

Check Also

মেয়েকে বাল্যবিয়ে দিচ্ছিলেন শিক্ষক

জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলায় গতকাল রোববার রাতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এক স্কুলছাত্রীর বিয়ে বন্ধ হয়েছে। এ ঘটনায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *