দশ বছর ধরে নদী থেকে বর্জ্য পদার্থ তুলে একটি নদী পরিষ্কার রাখছে কুকুর

১০ বছর ধরে একটি নদী পরিষ্কার রাখছে এই কুকুর, ইন্টারনেটে ভাইরাল ভিডিও, আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ব্যবহার্য পদার্থ থেকে সেসকল বর্জ্য উৎপন্ন হয় তা অসাবধানতাবসত বা ইচ্ছাকৃত ভাবে আমাদের আশেপাশে ছড়িয়ে

ছিটিয়ে ফেলে দেই। এসবের মধ্যে রয়েছে নিত্য ব্যবহৃত প্লাস্টিক, পলিথিন, টিনের কৌটা সহ নানা ধরনের অপচনশীল বর্জ্য পদার্থ। আমাদের মাঝে অনেকেই ইচ্ছাকৃত ভাবে অলসতা করে এসব বর্জ্য আশেপাশে উন্মুক্ত পরিবেশে ফেলি। আমাদের পরিবেশকে সুন্দর

রাখতে এসব বর্জের সঠিক ব্যবস্হাপনা অত্যন্ত প্রয়োজন। প্রতিটি শহর এলাকায় বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় সিটি কর্পোরেশন বা পৌরসভাগুলো বিশেষ ভূমিকা পালন করে। কিন্তু তাদের একার পক্ষে সব সময় এ বিশাল দায়িত্ব পালন করা সম্ভব হয়না যখন

আমরা ব্যক্তিগতভাবে সচেতন না হই। তাছাড়া বিভিন্ন সংস্হা আছে যারা সিটি কর্পোরেশনের কাজের পাশাপাশি ব্যক্তিগত উদ্দোগে বর্জ ব্যবস্হাপনার কাজ করে থাকে। তবে এক্ষত্রে যে বিষয়টি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে তা হলো আমাদের ব্যক্তিগত

সচেতনতা। মাঝে মাঝে মানুষকে অবাক করে দিয়ে কিছু গৃহপালিত প্রানীকে আমরা এসব কাজ করতে দেখতে পাই৷ এসব প্রানী মানুষের থেকেও বেশি সচেতন যারা এসব বর্জ্যকে সঠিক স্হানে ফেলে আমাদের দেখিয়ে দেয় যে কিভাবে আমাদের চলা উচিত একটি সুন্দর বসবাসযোগ্য পৃথিবী নিশ্চিত করার জন্য। আমাদের

ব্যক্তিগত সচেতনতা সিটি কর্পোরেশনের কাজ সহজ করার মাধ্যমে আমাদের একটি সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন নগরী উপহার দিতে পারে। সম্প্রতি এমনি একটি ভিডিও ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়েছে যেখানে দেখা যায় চীনের একটি নদী হতে একটি কুকুর সাঁতরে প্লাস্টিকের বোতল কুড়িয়ে এনে ডাস্টবিনে ফেলছে। কুকুরটি প্রতিদিন গড়ে 20-30 টি বোতল কুড়িয়ে এনে ডাস্টবিবে ফেলে। এ পর্যন্ত

কুকুরটি প্রায় ২ হাজারের অধিক বোতল নদী থেকে সাঁতার কেটে কুড়িয় এনে ডাস্টবিনে ফেলে নদী রক্ষায় সহায়তা করেছে। চীনের গনমাধ্যম পিপল্স ডেইলি জানিয়ে কুকুরটি দৈনিক এই কাজ করে এবং একটি নির্দিষ্ট ডাস্টবিনে এনে প্লাস্টিক ফেলে। নিরলস ভাবে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে এভাবে নদী হতে সাঁতার কেটে প্লাস্টিকের বোতল কুড়িয়ে এনে ডাস্টবিনে ফেলছে। অনেকে হাসি

তামাশা করে বলেছে কুকুরটিকে সিটি কর্পরেশনে বড় পদ দেওয়া উচিত। কুকুরটির এ ধরনের কাজ দেখে কিছু মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি হয় যারা নিজেদের ভুল শুধরে নিয়ে সচেতনতার সাথে তাদের ব্যবহৃত প্লাস্টিক এখন ডাস্টবিনে ফেলে। এতে করে শহরটিতে বর্জ্য ব্যবস্হাপনায় কিছুটা উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। ইন্টারনেটে মুহূর্তেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে যায় এবং নেটিজেনরা

ভিডিওটির প্রশংসা করেন। অনেকে কমেন্টে দূঃখ প্রকাশ করেন আমাদের অসচেতনতা নিয়ে এবং কুকুরটির থেকে আমাদের শিক্ষা গ্রহন করতে বলেন। পাশাপাশি অনেকে দূঃখ প্রকাশ করে সচেতন হবার পাশাপাশি একটি সুন্দর পৃথিবী বাস্তবয়নের জন্য আকাঙ্খা ব্যক্ত করেছেন।

About Gazi Mamun

Check Also

আবার নিলামে উঠছে ১১০ বিলাসবহুল গাড়ি

মার্সিডিজ বেঞ্জ ও বিএমডব্লিউসহ বিলাসবহুল ১১০টি গাড়ি নিলামে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *