শ্বশুর করোনা আক্রান্ত,পিঠে করে হাসপাতালে নিয়ে গেল ছেলের বউ

করভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হ’য়েছে শ্বশুর।অসুস্থ শ্ব’শু’র’কে চিকিৎসার জন্য পিঠে করে হাসপাতাল নিয়ে গে’ছে’ন এক নারী।ভারতের আ’সা’ম রাজ্যে ঘ’ট’নাটি
ঘটেছে।আ’সা’মের নওগাঁ

জেলার বাসিন্দা ওই নারী।তার নাম নীহারিকা দাস।শ্বশুরকে পিঠে করে হাসপাতালে নিয়ে যা’ও’য়া নী’হা’রি’কা দাসের ছবি এখন সা’মা’জি’ক যো’গা’যো’গে’র মাধ্যমগুলোতে বেশ প্রশংসা কু’ড়াচ্ছে, আ’সা’মে’র অভিনেত্রী থেকে শুরু করে বি’হার-

মুম্বাই- চেন্নাইয়ের বহু মা’নু’ষ প্রশংসা করছেন নীহা’রিকার।কিন্তু এসবে নজ’র রাখার অবস্থায় নেই ওই নারী।তি’নিও যে আক্রান্ত র’য়েছেন!জানা গেছে,ওই নারীর স্বামী কর্মসূত্রে রা’জ্যে’র বাইরে থা’কে’ন।বাড়িতে বৃদ্ধ শ্বশুর থুলেশ্বরের দেখভাল,সংসার

সা’ম’লানো সব কাজ করেন নীহারিকা। শ্বশুরকে হাস’পাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য অনেকের কাছে সা’হায্য চেয়েও পাননি তিনি।বাধ্য হয়ে নিজের পিঠে তুলে করেই তিনি রওনা হন স্থা”নী”য় রাহা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে।সেখানে থুলেশ্বর ভাইরাসে আক্রান্ত হি’সে’বে

শনাক্ত হন।কোভিড ধরা পড়ে ওই না’রী’রও।স্বা’স্থ্য’কেন্দ্র থেকে থুলেশ্বরকে হা’স’পাতালে ও নীহারিকাকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়।কিন্তু শ্বশুরকে একা ছেড়ে দিতে পা’রেননি নীহারিকা। স্বা’স্থ্য’কে’ন্দ্রে’ই থেকে যান।শেষ পর্যন্ত তাদের দুজনকেই

অ্যা’ম্বু’লে’ন্সে ভো’গেশ্বর ফুকনানি হাসপাতালে পাঠানোর ব্য’ব’স্থা করেন এ’ক’জন চিকিৎসক।হাসপাতালে গিয়েও শ্ব’শু’রের সেবা করছিলেন নীহারিকা।সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মি’ডি’য়ায়।শ্বশুরকে তিনি বারবার অভয় দেন,এটা

আ’ই’সি’ই’উ দেউতা (বাবা),ভয় পাবেন না। বুড়ো হয়ে ঢু’কে’ছে’ন,ডেকা (যুবক) হয়ে বের হ’বেন। দে’উতা আপনার কোনো চিন্তা নেই। কাঁদবেন না একদম। আমি তো আছি আ’প’না’র ভরসা।আর আমার আছেন আ’প’নি।সূত্র:আনন্দবাজার পত্রিকা

About Gazi Mamun

Check Also

একস’ঙ্গে ৯ সন্তান জন্ম দিলেন ২৫ বছরের হা’লিমা!

একস’ঙ্গে যমজ সন্তান জন্ম দেওয়ার খবর হ’র’হা’মে’শা’য় শোনা যায়। তবে এবার শোনা গেল ভিন্ন খবর। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *