পড়ে আছে বিলাসবহুল বাড়ি, নেই কোন দাবিদার

পড়ে আছে বিলাসবহুল বাড়ি, নেই দাবিদার ইয়াবা বিক্রি করেই বনে গেছেন কোটিপতি। বানিয়েছেন বিলাসবহুল বাড়ি। কিনেছেন অঢেল সম্পত্তি। কিন্তু মোস্ট ওয়ান্টেড অপরাধী হওয়ায় থাকতে পারছেন না নিজের বাড়িতে।

তাই বিলাসবহুল বাড়িটি এখন খালি পড়ে আছে। এমনকি কেউ দাবিও করছেন না। বলছি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকাভুক্ত মাদক মামলার পলাতক আসামি আবদুর রহমানের কথা। তিনি কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলার সদর ইউনিয়নের

মৌলভী পাড়ার বজল আহমেদের ছেলে। স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বর্তমানে চট্টগ্রামে থাকেন আবদুর রহমান। আবদুর রহমানের ছোট ভাই একরামও একজন ইয়াবার বড় ব্যবসায়ী। তিনি ২০১৯ সালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে আত্মসমর্পণকারী

১০১ ইয়াবা ব্যবসায়ীদের একজন। দীর্ঘ ১৮ মাস পর জামিনে বেরিয়ে আসেন তিনি। এরপর ফের শুরু করেন ইয়াবা ব্যবসা। জানা গেছে, একরাম এখনো বীরদর্পে ইয়াবা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। তার বড় ভাই ইয়াবা গডফাদার আবদুর রহমান চট্টগ্রামে

বসেই চালাচ্ছেন এ ব্যবসা। তবে আবদুর রহমানের গড়ে তোলা টেকনাফের মৌলভীপাড়ার বহুতলের বাড়িটি খালি পড়ে আছে। ২০১৯ সালে বিলাসবহুল এ বাড়িটি টেকনাফ থানার তৎকালীন ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ভেঙে ফেললেও পরবর্তীতে পুনর্নির্মাণ করা

হয়। আবদুর রহমানের বিরুদ্ধে টেকনাফ, উখিয়া, কক্সবাজার সদর মডেল থানা, চট্টগ্রামসহ ঢাকার বিভিন্ন থানায় ডজনেরও বেশি মাদক মামলা রয়েছে। এ ব্যাপারে ইয়াবা গডপাদার আবদুর রহমানের বাবা বজল আহমেদ বলেন, আমার ছেলেরা নির্দোষ।

এলাকার একটি প্রভাবশালী মহল জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ছেলেদের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছে। আর যেসব মামলা হয়েছে সব মিথ্যা ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। একের পর এক মিথ্যা মামলায় অভিযুক্ত হওয়ায় আমার ছেলেরা এলাকা ছাড়তে বাধ্য হয়েছে।

About Gazi Mamun

Check Also

বন্যার পানিতে গর্তে আটকে গিয়েছিল বড় বড় মাছ, হাটতে গিয়ে মাছ গুলো দেখল দুই যুবক, তুমুল ভাইরাল হল সেই ভিডিও।

সোস্যাল মিডিয়ায় এখন আশ্চর্যজনক ঘটনা দিলেই ভাইরাল হয়ে যায়।এখনকার যুগে প্রতিনিয়ত ভালো, খারাপ দুটোই সোস্যাল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *