সেনা প্রত্যাহার নিয়ে নিজেদের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করল যুক্তরাষ্ট্র!

আফ’গানি’স্তান থেকে সেনা প্র’ত্যাহার নিয়ে নিজেদের সিদ্ধান্তে কিছুটা পরিবর্তন আনল মার্কিন প্রশাসন। এই মুহূর্তে সব সেনা দেশে ফিরিয়ে নেবে না আমেরিকা। বরং ৬৫০ জনের একটি সৈন্য দল সেখানে থেকে যাবে। খবর

এপির।যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা এপির প্রতিবেদনে বলা হয়, মূল সেনাবাহিনী আফ’গানিস্তান থেকে প্রত্যাহারের পর কূ’টনীতিকদের নিরাপত্তার জন্য ৬৫০ জনের সৈন্য দল সেখানে থেকে যাবে। তারা আরও জানান, তুরস্ক নেতৃত্বাধীন

নিরাপত্তা অভিযান শুরু না হওয়া পর্যন্ত সাময়িক পদক্ষেপ হিসেবে তুর্কি সৈ’ন্যদের নিরাপত্তার জন্য সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আমেরিকার কয়েকশ’ অতিরিক্ত সেনা কাবুল বিমানবন্দরে থাকবে। কর্মকর্তারা বলছেন, সামগ্রিকভাবে যুক্তরাষ্ট্র, জোটের সামরিক কমান্ড এবং

বেশির ভাগ সেনা ৪ জুলাইয়ের মধ্যে বা তার পরপরই আফ’গানি’স্তান থেকে বেরিয়ে যাবে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কর্মকর্তারা জানান, সেনা প্রত্যাহারের বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য দেওয়ার অনুমতি তাদের দেওয়া হয়নি। এপ্রিলে যুক্তরাষ্ট্রের

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ঘোষণা দেন, ২০ বছরের সামরিক সংশ্লিষ্টতার পর আমেরিকান সৈন্যরা ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যেই আফ’গানি’স্তান ত্যাগ করবে। এরপর একই ঘোষণা দেয় ন্যাটো বাহিনী। ঘোষণা অনুযায়ী, ১ মে যুক্তরাষ্ট্র সৈন্য প্রত্যাহার শুরু

করে। সে দিন থেকে একাধিক স’ন্ত্রা’সী হা’ম’লা’র ঘ’টনা ঘটেছে আফ’গানি’স্তানে, নি’হ’ত ও আ’হ’ত হয়েছে অসংখ্য বে’সামরিক মানুষ। এসব কারণে আ’শঙ্কা করা হচ্ছে, কয়েক মাসের মধ্যে আ’ফগান সরকা’র ও তার সেনাবাহিনী বেহাল

পরিস্থিতির মুখোমুখি হবে। যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বারবার জোর দিয়ে বলছেন, আফ’গানি’স্তানে যুক্তরাষ্ট্রের কূটনৈতিক কর্মীদের জন্য কাবু’লের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বি’মানবন্দরে নিরাপত্তা অত্যন্ত জ’রুরি। এ বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্ব তুরস্ক নিতে চাইলেও সম্প্রতি এর বিরু’দ্ধে কড়া জবাব দিয়েছে

তা’লিবান। এদিকে সেনা প্রত্যাহার পরবর্তী সময়ে এ অঞ্চলে স’ন্ত্রা’সী বিরোধী তৎ’পরতা চালানোর জন্য পাকি’স্তানে ঘাঁটি স্থাপন নিয়ে সম্প্রতি তৎপরতা চালায় যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু প্রস্তাবটি শুরুতেই নাকচ করে দেয় ইসলামাবাদ। কয়েক দিন আগে মার্কিন পত্রিকায় নিজের লেখা নিবন্ধে সেই সিদ্ধান্ত পুনরায় ব্যক্ত করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

About Gazi Mamun

Check Also

ইসলাম ধর্ম ও মুসলিমদের প্রশংসা করে যা বললেন পুতিন

ইসলাম ধর্ম এবং রাশিয়ায় বসবাসকারী মুসমানদের ভূয়সী প্রশংসা করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।বলেছেন, “এটি শান্তির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *