টাকার মালা দিয়ে ইউপি সদস্যদের বরণ

লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলায় নবনির্বাচিত তিনজন ইউপি সদস্যকে (মেম্বার) টাকার মালা পরিয়ে বরণ করা হয়েছে। নির্বাচনের দিন (২১ জুন) থেকে অনুসারী ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা ইউপি সদস্যদের টাকার মালা পরিয়ে

শরীরে রং মেখে বিজয়ের আনন্দে মেতে উঠেছেন। এসব ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ার পর চলছে আলোচনা-সমালোচনা ঝড়। স্থানীয়রা জানায়, ভোটে জিতে টাকার মালা উপহার নেওয়া ও দেওয়া দুটিই অপসংস্কৃতি। উপজেলাটি নদী ভাঙনকবলিত।

যুগ যুগ ধরে নদীগর্ভে পূর্বপুরুষের ভিটেমাটি হারিয়ে মানুষের কষ্টের শেষ নেই। টাকার মালার কারণে সমাজে নেতিবাচক বার্তা বহন করে। এসব থেকে বের হয়ে আসতে হবে। এ ধরনের কোনো ঘটনা এরআগে দেখা যায়নি। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তোরাবগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার)

মো. আব্বাস উদ্দিনকে টাকার মালা পরিয়ে বরণ করা হয়েছে। আজ শনিবার (২৬ জুন) দুপুরে ওয়ার্ডের মানুষের সঙ্গে নির্বাচন-পরবর্তী সাক্ষাৎ করতে বের হলেই তাকে টাকার মালা পরানো হয়। এ সময় তিনি ওই মালা পরে আশপাশ এলাকায় ঘুরে বেড়ান। এমন ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়। আব্বাস উদ্দিন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি। তিনি বলেন, ১৫-২০ বছর আমি মানুষের সঙ্গে আছি। ভোটে তাদের

ভালোবাসা পেয়েছি। এখন সবার কাছে গিয়ে দেখা করছি। চরফলকন ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্বাচিত সদস্য (মেম্বার) রেদওয়ান হোসেন রিপন পালোয়ানকে টাকার মালা উপহার দেওয়া হয়েছে। ভক্ত-অনুসারীরা তাকে টাকার মালা দিয়ে বরণ করে নিয়েছেন। আর সেই ছবি নিজ ফেসবুক আইডিতে দিয়েছেন ইউপি সদস্য রিপন। রেদওয়ান হোসেন রিপন রিপন পালোয়ান ফেসবুক আইডিতে স্ট্যাটাসে লিখেন, মানুষের ভালোবাসা টাকা দিয়ে কেনা

যায় না। আর যে ভালোবাসা টাকা দিয়ে কেনা হয়, সেই ভালোবাসা কখনো মধুর হয় না। তার পোস্টের নিচে পরিচিতরা অভিনন্দন জানিয়ে মন্তব্য করছেন। স্থানীয় সূত্র জানায়, রিপন কমলনগর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি ও চরফলকন ইউনিয়ন যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক। তিনি বর্তমান ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য। ২১ জুন ইউপি নির্বাচনে ভ্যানগাড়ি মার্কায় ৩১৪ ভোট পেয়ে তিনি ফের নির্বাচিত হয়েছেন।

তিন দিন ধরে এলাকার মানুষ ও আত্মীয়দের বাড়িতে-বাড়িতে গিয়ে দেখা করার সময় তার গলায় টাকার মালা পরিয়ে দেওয়া হয়। ফেসবুকের ছবিগুলোতে দেখা যায়, একেক বাড়িতে একেক রকমের টাকার মালা তার গলায় দেওয়া হয়েছে। এরমধ্যে একটি মালায় ৫০০ টাকার একটি ১০০ টাকার ১০টি নোট দেখা যায়। এছাড়া অন্যান্য মালাতে ১০, ২০, ৫০, ১০০, ২০০, ৫০০ ও

১০০০ টাকার নোটও দেখা গেছে। অন্তত ৩৫টি টাকার মালা তাকে দেওয়া হয়। দিলীপ চন্দ্র দাস এছাড়া হাজীরহাট ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য দিলীপ চন্দ্র দাসকেও টাকা মালা পরিয়ে বরণের মাধ্যমে উৎসব করা হয়েছে। চরফলকনের মেম্বার রেদওয়ান হোসেন রিপন পালোয়ান বলেন, জনগণ আমাকে দ্বিতীয়বারের মতো সবপ্রার্থীর চেয়ে বেশি ভোট দিয়ে মেম্বার বানিয়েছেন। খুশি হয়ে টাকার মালা দিয়ে মানুষ আমাকে বরণ করে নিয়েছে।

About Gazi Mamun

Check Also

সেই পরিবারের পাশে দাঁড়ালেন শামীম ওসমানের স্ত্রী

ছেলের হার্টে ছিদ্র, অপরদিকে স্বামীর ক্যান্সার। এর মাঝে আবার চাকরি হারান স্বামী। এ নিয়ে দুশ্চিন্তায় …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *