জোয়ারের পানিতে প্লাবিত কক্সবাজারের কুতুবদিয়া

পূর্ণিমা ও বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের প্রভাবে উপকূলীয় নদনদীতে অস্বাভাবিক জোয়ারের সৃষ্টি হয়েছে। এতে কক্সবাজারের কুতুবদিয়ার আলী আকবার ডেইল ইউনিয়নের বায়ু বিদ্যুৎ কেন্দ্রসহ কয়েকটি এলাকায় পানিবন্দি হয়ে পড়েছে হাজারো মানুষ।

প্লাবিত এলাকার মধ্যে রয়েছে হায়দার পাড়া, তেলী পাড়া, পন্ডিত পাড়া ও কাজীর পাড়া। শুক্রবার (২৩ জুলাই ) সকাল ১২টার দিকে এমন চিত্র দেখা যায়। এলাকাবাসীর অভিযোগ, বেড়িবাঁধ না থাকায় পূর্ণিমায় তাদের পানির মধ্যে ভাসতে হচ্ছে। জোয়ারের পানি

আরও দুইদিন বাড়তে পারে। স্থানীয় বাসিন্দা তানজিল মাহমুদ বলেন, বেড়িবাঁধ ভেঙে যাওয়ায় গত কয়েক বছর ধরে হায়দার পাড়া, তেলী পাড়া, পন্ডিত পাড়া ও কাজীর পাড়াসহ কয়েক হাজার মানুষ জোয়ার হলেই পানিবন্দি হয়ে পড়েন। এককথায়,

এখন স্বপ্ন নিয়ে বাঁচার অনুকূলে নেই বলে জানান। পানিবন্দি নাসিমা আক্তার, নুরজাহান ও নাঈমা বলেন, জোয়ারে পুরো এলাকা পানিতে ডুবে গেছে। ঘরে রান্না-বান্না বন্ধ রয়েছে। আমরা খুব দুর্ভোগের মধ্যে আছি। এ ব্যাপারে আলী আকবর ডেইল

ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুচ্ছফা (বি.কম) বলেন, কুতুবদিয়া দ্বীপের আলি আকবার ডেইল ইউনিয়নের বেশি ঝুঁকিতে আছে পর্যটকদের আর্কষন বায়ু বিদ্যুৎ কেন্দ্র এবং বেড়িবাধেঁর মধ্যে প্রায় ৩ কিলোমিটার বেড়িবাঁধ বিলীন রয়েছে।

এ ভাঙন বেড়িবাঁধ এলাকা দিয়ে পূর্ণিমার জোয়ারে পানি প্লাবিত হয়েছে গ্রাম। আরো ২ দিন পানি বাড়তে পারে। যদি টেকসই বেড়িবাঁধ না দেওয়া হয় তাহলে আলি আকবার ডেইল সাগরে বিলীন হয়ে যাবে বলে তিনি জানান।

About Gazi Mamun

Check Also

৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়ো হাওয়ার সম্ভাবনা, নদীবন্দরে সতর্ক সংকেত

দেশের বিভিন্ন জে’লার উপর দিয়ে দক্ষিণ অথবা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *