এক সাথে দশ সন্তানের জন্ম দিয়ে বিশ্বজুড়ে রেকর্ড গড়লেন- এই মহিলা

দক্ষিণ আফ্রিকার এক নারী একই সাথে ১০ সন্তানের জন্ম দিয়ে গিনেস রেক’র্ড করেছেন। সোমবার রাতে দেশটির প্রশা’সনিক রাজধানী প্রিটো’রিয়ার একটি হাসপা’তালে গোসিয়াম থমারা সিথোল নামে ৩৭ বছর বয়’সী

কৃষ্ণাঙ্গ এই নারী একসঙ্গে ১০ সন্তা’নের জন্ম দেন। এর আগে গত মাসে মর’ক্কোর মাঝিয়া’ন হালিমা সিসি নামে এক নারী একসাথে ৯ সন্তান জন্ম দিয়ে গি’নেস রেকর্ড করেছি’লেন। সোমবার দক্ষিণ আ’ফ্রিকার গোসিয়াম ১০ সন্তানের জন্ম দিয়ে

সেই রেকর্ড ভেঙেছেন গোসি’য়ামের স্বামী তেভো সোসোটেসি গণমাধ্যমকে জানি’য়েছেন, প্রিটো’রিয়ায় একটি হাস’পাতালে ডাক্তারদের তত্ত্বাবধানে ছিল তার স্ত্রী। বিকা’লে হঠাৎ করে ব্যাথা অনুভব হলে থাকে হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। হাসপা’তালের

ডাক্তারেরা আগে থেকেই নিশ্চিত ছিল গোসি’য়ামের গর্ভে একাধিক বাচ্চা রয়েছে। তবে দুইজন বিশেষ’জ্ঞ গাইনি চিকিৎসক তিনজন জেনারে’ল চিকি’ৎসকের সহযোগি’তায় সিজা’রের মাধ্য’মে একে একে ১০টি বাচ্চা বের করে আনেন। যার মধ্যে সাত’জন ছে’লে

এবং তিনজন মেয়ে। এর ৬ বছর আগে গোসিয়া যমজ স’ন্তানের জন্ম দিয়ে’ছিলেন। এই দিকে প্রসবের পর গোসিয়া গণমাধ্য’মকে ব’লেছেন, আমি আমার গর্ভ নিয়ে হতবাক। প্রথম দিকে ডাক্তা’ররা যমজ সন্তা’ন বলছিল, কিন্তু ১০ জন সন্তান কিভাবে আমার গর্ভে ৩৬ সপ্তাহ ছিল তা অ’কল্পনীয়। আমি অসুস্থ ছিলাম,

এটা আ’মার জন্য কঠিন সময় ছিল। আমি কেবল ই’শ্বরের কাছে প্রার্থনা করি যেন আমার সমস্ত শিশু’দের সুস্থ অব’স্থায় বাঁচি’য়ে রাখে’। আমি এবং আমা’র সন্তানরা এখন সম্পূ’র্ণ সুস্থ। আমি সকল চিকিৎস’ককে ধন্যবাদ জানা’চ্ছি। এক’সাথে ১০ সন্তানের জন্ম দেওয়া নারী হাউটেং (জোহানে’সবার্গ) প্রদেশে’র প্রিটো’রিয়া

সং’লগ্ন থে’ম্বিসা এলা’কার বাসি’ন্দা। প্রিটোরি’য়া মেডি’কেল বিশ্ববিদ্যা’লয়ের গাইনি বিভাগের উপ-প্রধান অধ্যাপক ডিনি মাওেলা বলেছেন, গিসোয়ানের ১০ সন্তান জন্ম দেওয়ার ঘটনা বিরল এবং সাধা’রণত ইশ্বরের সহযোগিতা ছাড়া এমন ঘটনা পৃথিবীতে বিরল। মাওেলা বলেন,১০টি শিশু’কে আগামী কয়ে’ক মাস ইনকিউবে’টরে রেখে ওজন ঠিক করতে হবে। কারণ বাচ্চা’গুলো গর্ভা’বস্থায় উচ্চ ঝুঁ’কিপূর্ণ ছিল।

About Gazi Mamun

Check Also

এবার থেকে গ্যাস সিলিন্ডারে বুকিং এ মিলবে ৩০০ টাকা, বিশেষ প্রকল্পের সুবিধা আনলো দেশ!

কোরোনা আ-বহে রীতি-মতো দেশের অগ্র-গতি থমকে দাঁড়িয়েছে। দেশ যে উন্নতির শিখরে পৌঁছে ছিল সেই উন্নতির …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *