দেশে প্রথম নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় বিমানের সি-চেক কার্যক্রম শুরু

দেশে প্রথমবারের মতো নিজ’স্ব ব্যবস্থাপনায় অত্যাধুনিক ড্রিমলাইনার বিমানের সি-চেক কার্যক্রম শুরু করেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স।

মঙ্গলবার বোয়িং ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার ‘আকাশবীণা’র মাধ্যমে সি-চেক কা’র্যক্রম শুরু হয়।
বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের উপ-মহাব্যবস্থাপক (জনসং’যোগ)

তাহেরা খন্দকার ডেই’লি বাং’লাদেশকে এ তথ্য জানান। তিনি আরো জানান, বিমানের সি-চেক একটি দীর্ঘমেয়া’দি, জটি’ল এবং উচ্চ কারিগরি দক্ষতা সম্পন্ন চেক যাতে উড়োজাহাজের

বিভিন্ন অবকাঠা’মো উন্মোচনের মাধ্যমে বিশদভাবে নিরীক্ষান্তে উড়োজাহাজকে নভোযোগ্য (airworthy) করা হয়।
তাহেরা খন্দকার জানান, বোয়িং-৭৮৭ মডেলের ড্রিমলাইনারের

সি-চেক প্রতি তিন বছর পরপর করতে হয়। বিশ্বের খুব স্বল্প সংখ্যক এয়ারলাইন্সেরই বোয়িং-৭৮৭ এর মতো অত্যাধুনিক উড়োজাহাজের সি-চেক করার সক্ষ’মতা রয়েছে। এটি বিমান

ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড মেটেরিয়াল ম্যানেজমেন্ট পরিদফতরের সক্ষ’মতা অ’র্জনের ক্ষেত্রে একটি মাইলফলক। তিনি আরো জানান, এখন পর্যন্ত যেকোনো ধরনের নতুন উড়োজাহাজের ক্ষেত্রে প্রথম সি-চেক

বিদেশি এমআরও (Maintenance, Repair & Overhaul Organization)-এর মাধ্যমে সম্পন্ন হয়। আগে বিদেশি সংস্থা দিয়ে সি-চেক সম্পন্ন করতে বিপুল

বৈদেশিক মু’দ্রা ব্যয় হতো। এখন থেকে সি-চেক সফলভাবে দেশে সম্পন্ন হলে উড়োজাহাজ প্রতি আনুমানিক ৬ লাখ মার্কিন ড’লার সাশ্রয় হবে।

About Gazi Mamun

Check Also

বিমানবন্দরে যাত্রীদের ভুলে ফেলে যাওয়া বহু ব্যাগ তোলা হবে নিলামে

বিমানবন্দরে পরে আছে বহু ব্যাগ। মালিক খুঁজে না পাওয়ায় এই ব্যাগগুলো নিলাম হয়ে যাবে। দীর্ঘদিন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *