ব্রেকিং নিউজ তরুণদের সুযোগ দিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবেন না দেশ সেরা ওপেনার তামিম ইকবাল

ব্রেকিং নিউজ তরুণদের সুযোগ দিতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবেন না দেশ সেরা ওপেনার তামিম ইকবাল খান! নিজের অফিসিয়াল ফেইসবুক পেইজ থেকে লাইভে এসে তিনি যা বললেন….“ছোট্ট একটা ঘোষণা ছিল।

আমি কিছুক্ষণ আগে বোর্ড সভাপতি পাপন ভাই ও প্রধান নির্বাচক নান্নু ভাইকে ফোন করেছিলাম। ফোন করে কিছু জিনিস। শেয়ার করেছি। যেটা আপনাদের সঙ্গেও শেয়ার করতে চাই। আমি উনাদের বলেছি যে, আমার মনে হয় না, বিশ্বকাপ

দলে আমার থাকা উচিত। বেসিক্যালি বিশ্বকাপের জন্য আমি ‘অ্যাভেইলঅ্যাবল’ নই।”
“এটার দুই-তিনটি কারণ আছে। একটা বড় কারণ, গেম টাইম। বেশ কয়েকদিন ধরে খেলছি না এই ফরম্যাটে। দ্বিতীয়ত, ইনজুরি। যদিও ইনজুরি আমার মনে হয় না অত বড় সমস্যা।

কারণ আমি আশা করি যে বিশ্বকাপের আগেই ঠিক হয়ে যাব।”
“আমার কাছে যে মেইন জিনিসটি ‘ট্রিক’ করেছে এই সিদ্ধান্ত নিতে, যেহেতু সবশেষ ১৫-১৬ টি-টোয়েন্টি খেলিনি এবং আমার জায়গায় যারা খেলছিল, আমার কাছে কোনোভাবেই মনে হয় না, এটা কোনোভাবে ফেয়ার হবে তাদের প্রতি, যদি আমি হঠাৎ করে

এসে ওদের জায়গাটা নিয়ে নেই।” “সম্ভবত…হয়তোবা আমি বিশ্বকাপ দলে থাকতাম, এটা আমি জানি না…। এটা আমি মনে করি, হয়তোবা আমি থাকতাম। কিন্তু আমার কাছে মনে হয় না, এটা ফেয়ার হতো।” এজন্যই বোর্ড প্রধান ও প্রধান নির্বাচক, দুজনকেই আমার বার্তা জানিয়ে দিয়েছি। এই বিশ্বকাপে আপনারা

আমাকে দেখবেন না। তবে আমি এতটুকুই বলতে পারি, এই সিরিজ ও বিশ্বকাপের জন্য দলকে আমি সর্বোচ্চ শুভ কামনা জানাই।” “আবার পরিষ্কার করে দেই, আমি অবসর নিচ্ছি না। অবসরে যাচ্ছি না। কিন্তু এই বিশ্বকাপে আমার খেলা হবে না। আমার কাছে মনে হয়, এটাই ফেয়ার ডিসিশান। আমার মনে হয়, তরুণ যারা ওপেন করছেন বিশ্বকাপে, ওদের সুযোগ পাওয়া

উচিত। কারণ, ওরা গত ১৫-১৬ ম্যাচ ধরে খেলছে। ওদের প্রস্তুতি হয়তো আমার চেয়ে ভালো থাকবে। সঙ্গে এটাও মনে করি, তারা হয়তো দলকে আমার চেয়ে ভালো সার্ভিস দিতে পারবে।”
“সব মিডিয়াকে একটা অনুরোধ করব, নো ফোন কলস, নো হোয়াটস অ্যাপ ম্যাসেজেস। আমি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি, এটিতেই

অটল থাকব। এখানে নতুন করে বলার কিছু নেই। সব কারণ বলে দিয়েছি। আশা করি আপনারা আমার প্রাইভেসিটাকে সম্মান করবেন। আমার সিদ্ধান্তকে শ্রদ্ধা করবেন।” এখানে কোনো বিতর্ক নেই। বিতর্ক হওয়ার কিছু নেই। আমার যা মনে হচ্ছিল, সেটাই করেছি। মানুষ হিসেবে আপনারা আমাকে অনেকেই চেনেন না, কিন্তু যারা আমার কাছের, সবাই আমার ব্যাপারে একটা জিনিস

জানেন যে, আমি যা-ই করি, হৃদয়ের ভেতর থেকেই করি। আমার মন এটাই বলছিল যে, এটাই সঠিক সিদ্ধান্ত। দলের জন্য এটাই ভালো। এই কারণেই এই সিদ্ধান্তটি নিয়েছি।” ইনশাল্লাহ, এর মধ্যেও যদি খেলার কোনো সুযোগ থাকে, দেশের বাইরে টি-টোয়েন্টি বা অন্য ফরম্যাট খেলার সুযোগ থাকে, আমি চেষ্টা করব খেলার, নিশ্চিত করতে যে খেলার মধ্যে আছি। আর সামনে তো অনেক খেলা আছেই। দেখা হবে সবার সঙ্গে। ভালো থাকবেন।”

About Gazi Mamun

Check Also

মা আমি বিশ্বকাপে ডাক পেয়েছি: মাকে ফোন করে শরিফুল

বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে অভিষেক হয়েছে আগেই। এবার আসন্ন টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দলে ডাক পেয়েছেন পঞ্চগড়ের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *