Home / শিক্ষাঈন / একাদশে ভর্তি এবারো অনলাইনে, আবেদন শুরু জানুয়ারিতে

একাদশে ভর্তি এবারো অনলাইনে, আবেদন শুরু জানুয়ারিতে

২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে কলেজ ও মাদ্রাসায় একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি আগামী বছরের জানুয়ারিতে শুরু হবে। এবারো অনলাইনে ভর্তির জন্য আবেদন ও মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে। ডিসেম্বরের শেষে দিকে এসএসসি-সমমান

পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশ করা হতে পারে। এরপর একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে। ইতোমধ্যে একাদশে ভর্তির খসড়া নীতিমালা তৈরি করা হয়েছে। আগামী সপ্তাহে তা শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হতে পারে বলে জানা গেছে
খসড়া নীতিমালায় দেখা গেছে, এ বছর একাদশ শ্রেণিতে ভর্তির

ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা, প্রবাসী ও বিকেএসপি কোটা বহাল রেখে অন্যান্য কোটা বাতিল করা হয়েছে। ভর্তিতে শুধু অনলাইনে আবেদন করার প্রস্তাব করা হয়েছে। ভর্তি নিশ্চয়ন ফি গত বছরের মতো ১৩৫ টাকা নির্ধারণ করতে প্রস্তাব করা হয়েছে। অর্থাৎ চূড়ান্ত তালিকায় নাম এলে একজন শিক্ষার্থীকে এ পরিমাণ টাকা দিতে

হবে। চলতি সপ্তাহে দেশের সব শিক্ষাবোর্ডের কলেজ পরিদর্শকদের এক সভায় খসড়া নীতিমালা তৈরি করা হয়েছে। নীতিমালায় দেখা গেছে, এবারো অনলাইনে সর্বনি¤œ ৫টি ও সর্বোচ্চ ১০টি কলেজে বা মাদ্রাসায় আবেদন করার সুযোগ রাখা হয়েছে। এজন্য নেয়া হবে ১৫০ টাকা। তবে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে এসএমএস করে

ভর্তির জন্য আবেদন করা যাবে না। শতভাগ মেধা কোটা ছাড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিশেষ কোটা হিসেবে ৫ শতাংশ মুক্তিযোদ্ধা, বিকেএসপি ০.৫ এবং প্রবাসী ০.৫ শতাংশ কোটা বহাল রাখা হয়েছে। এবার একাদশে ভর্তিতে বিভাগীয় ও জেলা সদর, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধস্তন দপ্তরগুলোর কোটা বাতিল করা হয়েছে।

এ বছর ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি ফি ৫ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এছাড়া ঢাকার মধ্যে আংশিক এমপিওভুক্ত ও এমপিওবিহীন প্রতিষ্ঠানের বাংলা মাধ্যমে ভর্তির জন্য ৯ হাজার ও ইংরেজি মাধ্যমের ভর্তি ফি ১০ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হবে বলে জানা গেছে। তবে উন্নয়ন ফি ৩ হাজার টাকার বেশি করা যাবে না,

এটা সব প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য। প্রতিটি খাতে অর্থ আদায়ের ক্ষেত্রে রসিদ প্রদানের নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
মফস্বল ও পৌর এলাকার জন্য ভর্তি ফি নির্ধারণ করা হয়েছে এক হাজার এবং পৌর জেলা সদরে দুই হাজার টাকা। এছাড়া ঢাকা ব্যতীত অন্যান্য মেট্রোপলিটন এলাকায় তিন হাজার টাকার বেশি নেয়া যাবে না বলে খসড়ায় উল্লেখ করা হয়েছে।

নীতিমালা অনুযায়ী, অনলাইনে একাদশ শ্রেণির প্রথম ধাপের ভর্তি আবেদন আগামী ৮ থেকে ১৫ জানুয়ারির মধ্যে শুরুর প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। এক সপ্তাহ পর পর ৩টি ধাপে শিক্ষার্থীদের কাছে আবেদন নেয়া হবে। অনলাইন আবেদন শেষে ফলাফল প্রতিটি শিক্ষাবোর্ডের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে। তার সঙ্গে নির্বাচিত আবেদনকারীর দেয়া মোবাইল নম্বরে এসএমএস পাঠানো হবে। অনলাইনে বা

সরাসরি কলেজে গিয়ে ভর্তির জন্য নিশ্চয়ন করার সুযোগ দেয়া হবে। একাদশ শ্রেণির ভর্তির নীতিমালা বিষয়ে জানতে চাইলে ঢাকা শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নেহাল আহমেদ বলেন, এ বছর একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নীতিমালায় বড় ধরনের কোনো পরিবর্তন আনা হচ্ছে না। আগের বছরের আলোকে অনলাইনভিত্তিক আবেদন ও একই পদ্ধতিতে নির্বাচিতদের তালিকা প্রকাশ করা হবে। বুয়েটের সহযোগিতায় একাদশ শ্রেণির ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনা

করা হবে। এতে কোনো ধরনের ভুয়া আবেদন ও জালিয়াতি করার সুযোগ থাকছে না। তিনি বলেন, খসড়া নীতিমালায় বিভিন্ন কোটা তুলে দেয়ার প্রস্তাব করাসহ ভর্তি নিশ্চয়ন ফি ১৩৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন ফি পরিশোধ করতে হবে। এ সংক্রান্ত নীতিমালা আগামী সপ্তাহে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। মন্ত্রণালয় থেকে এটি অনুমোদন দিলে পরে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে ভর্তি আবেদন শুরু করা হবে।

About Gazi

Check Also

এসএসসিতে জিপিএ-৫ পেলো যমজ বোন

মাগুরা সদরের পারনান্দুয়ালী গ্রামে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছে যমজ বোন রাইসা ও লামিসা। তারা দুজনই …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *