Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / বুলেট ট্রেনে এবার পাখা গজাবে, ছুটবে আরও অধিক গতিতে!

বুলেট ট্রেনে এবার পাখা গজাবে, ছুটবে আরও অধিক গতিতে!

ওজন কমিয়ে গতিবেগ বাড়ানোর উদ্দেশ্যে চীনের বুলেট ট্রেনে এবার পাখা গজাচ্ছে। একদল গবেষকের দীর্ঘদিন ধরে পর্যালোচনার পর সিআর৪৫০ প্রকল্পের অংশ হিসেবে সংযুক্ত হবে উচ্চগতি ও নতুন প্রজন্মের এ ট্রেন।

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমের রেলপথে ট্রেনের ছাদে পাখা সংযুক্ত করে এ গতি বাড়ানোর পরামর্শ দিয়েছেন গবেষকরা। গবেষণা প্রকৌশলী ঝাং-এর নেতৃত্বে চেংডু ফ্লুইড ডায়নামিক্স ইনোভেশন সেন্টারের দলটির এ গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়েছিল জুনে। পিয়ার-রিভিউ

করা চীনা জার্নাল অ্যাক্টা অ্যারোডাইনামিকা সিনিকায় সম্প্রতি প্রকাশিত হয় প্রতিবেদনটি। সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।
গবেষণায় বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, প্রতিটি ট্রেনের ক্যারেজে পাঁচ জোড়া ছোট ডানা যোগ করলে সেগুলো লিফট হিসেবে কাজ

করবে এবং ট্রেনের ওজন কমে আসবে এক-তৃতীয়াংশ। তখন এর গতিবেগ হবে ঘণ্টায় ৪৫০ কিলোমিটার। চীনের উচ্চগতির রেল নেটওয়ার্ক বর্তমানে বিশ্বের দ্রুততম। এর বর্তমান বুলেট ট্রেনগুলোর গতিবেগ ঘণ্টায় ৩৫০ কিলোমিটার। উদ্ভাবিত প্রস্তাবনা অনুযায়ী ট্রেন

চললে বেইজিং থেকে সাংহাই যেতে সময় লাগবে মাত্র তিন ঘণ্টা। আর বেইজিং থেকে ৫ ঘণ্টার মধ্যে পৌঁছে যাওয়া যাবে গুয়াংজু।
হাইস্পিড ট্রেনে পাখা লাগানোর ধারণাটি নতুন নয়। জাপানি প্রকৌশলীরা ১৯৮০-এর দশকে এমন একটি ট্রেনের প্রস্তাব

দিয়েছিলেন, যার পাশ থেকে প্লেনের মতো ডানা প্রসারিত হয়েছিল। অবশেষে দুই দশক পরে এর একটি প্রোটোটাইপ তৈরি করা হয়েছিল। কিন্তু ওই প্রয়াসটির ব্যবহারিক প্রয়োগ ব্যর্থ হয়েছিল নিরাপত্তা বেষ্টনী এবং টানেলের মতো বিদ্যমান অবকাঠামোগত

ত্রুটির কারণে। তবে ঝ্যাং এবং তার দল একটু ভিন্ন কিছু প্রস্তাব নিয়ে এসেছে। ট্রেনের পাশে একজোড়া দৈত্যাকার ডানা রাখার পরিবর্তে ট্রেনের ছাদে ছোট ডানার একটি অ্যারে কোনো কিছুর সঙ্গে সংঘর্ষের ঝুঁকি ছাড়াই যথেষ্ট শক্তি তৈরি করতে সমর্থ হবে।

এ ক্ষেত্রে তারা সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, ডানাগুলো সাবধানে ডিজাইন এবং ইনস্টল করা দরকার। গবেষকরা অনুমান করেছেন, ছাদের ওপর ডানাগুলো ১.৫ থেকে ২ মিটার (৪.৯ থেকে ৬.৫ ফুট) পর্যন্ত প্রসারিত করার জন্য যথেষ্ট পরিসর রয়েছে। তাদের প্রস্তাব অনুযায়ী যদি ট্রেনটি তৈরি হয় তবে এটি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের

মতো কাজ করবে। ঝাং এবং তার দল চীনের হাইপারসনিক অস্ত্রের উন্নয়নসহ অন্যান্য সামরিক গবেষণা কর্মসূচিতেও অবদান রেখেছেন।ওই রেল লাইনের নির্মাণকাজ সেপ্টেম্বরে শুরু হয়েছিল এবং এটি শেষ হতে পাঁচ বছর সময় লাগবে।

প্রথম সিআর৪৫০ ট্রেনগুলো সম্ভবত চীনের দক্ষিণ-পশ্চিমের দুটি বড় অর্থনৈতিক কেন্দ্র চেংডু এবং চংকিং-এর মধ্যে একটি নতুন ৩০০ কিলোমিটার রেললাইনে চলাচল করবে।

About Gazi

Check Also

ফিলিস্তিনে ৫০ হাজার কোরআন উপহার দিচ্ছে তুরস্ক

কুরআনের প্রতিটি আয়াতে যেমন রয়েছে বিশ্বমানবতার হেদায়াত ও মুক্তির বারতা তেমনি কুরআন তিলাওয়াতে রয়েছে বিশ্বাসীদের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *