Home / আলোচিত নিউজ / ‘আল্লাহ না চাইলে বাঁচার উপায় ছিল না’

‘আল্লাহ না চাইলে বাঁচার উপায় ছিল না’

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে প্রায় চারশ যাত্রী নিয়ে বরগুনার উদ্দেশ্যে লঞ্চটি ঢাকা সদরঘাট থেকে ছেড়ে যায়। চাঁদপুর ও বরিশাল টার্মিনাল লঞ্চটি থামে এবং যাত্রী উঠা-নামা করে।
ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে

পৌঁছলে রাত ৩টার দিকে এতে আগুন ধরে যায়। পরে ঝালকাঠি সদর উপজেলার ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের দিয়াকুল এলাকায় নদীর তীরে লঞ্চটি ভেড়ানো হয়।লঞ্চ থেকে প্রাণ বাঁচাতে নদীতে ঝাঁপিয়ে পড়েন যাত্রীদের অনেকে। আল্লাহ জানে ক্যামনে মুই বাইচ্চা

(বেঁচে) আছি, হে না চাইলে আইজ কেউ মোরে বাঁচাইতে পারতে না। এহন আইছি লঞ্চটারে দ্যাখতে, হ্যার (তার) লগে মোর জ্যাকেট আর ব্যাগ খোঁজতে। কিন্তু খুঁইজ্যা ব্যাগটা পাইলাম না, জ্যাকেটের পোড়া অংশ পাইছি, তয় হ্যা (সেটা) দিয়া আর কি

হরমু, হ্যার লাইগ্যা এহন বাড়িই যাই। এসব কথা বলছিলেন বরগুনার বেতাগী উপজেলার বাসিন্দা আব্দুল্লাহ। তিনি জানান, সৌদি আরব যাবেন আর কয়েকদিন পরেই। তাই কোভিড ভ্যাকসিন নিতে গত বুধবার ঢাকায় গিয়েছিলেন। বৃহস্পতিবার

ভ্যাকসিন দিয়ে দুপুরের দিকেই ঢাকার সদরঘাটে আসেন। এরপর অভিযান-১০ লঞ্চে চেপে বসেন বাড়িতে ফিরবেন বলে। তিনি বলেন, ‘মোর ইঞ্জিন চালিত নৌকা আছে বাড়িতে। হ্যার লাইগ্যা ইঞ্জিনের কিছু বুঝি। লঞ্চ ছাড়ার সময় ইঞ্জিনের শব্দডা ক্যামন

জানি লাগছিল। রাইতে যহন ছাদে উডি, তহন দেখি ধুয়ার (ধোঁয়া) লগে আগুনের ফুলকি বাইর হয়। অন্যগো লগে কইছিও ঠিকমতো বাড়ি যাইতে পারমু কিনা।
‘এরপর তো রাইত ১টার দিকে বরিশাল আর রাইত ৩টার দিকে

ঝালকাঠি পৌঁছায় লঞ্চটা। রাইত ৩টা ১৩ মিনিটে ঘরি দেইখ্যাই ঘুমানের লইগ্যা হুইয়া (শুয়ে) পড়ি। কিন্তু এর কয়েক মিনিট পরই বিকট শব্দ হয়। এরপর দেহি নিচ দিয়া আগুন আর ধোঁয়া আইতাছে। লোকজন চিল্লাচিল্লি শুরু হরছে। কয়েক মিনিটের মধ্যে

আগুন যহন ছড়াইয়া পড়ে, তহন লঞ্চটা মাঝ-নদীতেই। কিছু বোঝতে আর পারি নাই, লোকজন যহন নদীতে লাফ দেওয়া শুরু হরলো, প্রাণ বাঁচাইতে, তহন মুইও লাফ দি। অ্যারপর ক্যামনে যে বাইচ্চা আছি, হ্যা আল্লাহ জানে। আল্লাহ না চাইলে বাঁচার উপায়

ছিল না। এদিকে, ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে এমভি অভিযান-১০ লঞ্চে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারকে দেড় লাখ টাকা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন নৌপরিবহণ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

About Gazi

Check Also

মাত্র ৬৭ টাকা নিয়ে এসেছিলেন ঢাকায়, এখন ৮ হাজার কোটি টাকার মালিক

স্বপ্নের শক্তিকে বাস্তবের শক্তিতে রুপান্তর করার অনুপ্রেরনাময় দৃষ্টান্ত মোহাম্ম’দ নুরুল ইস’লাম। শূন্য থেকে সফলতার গল্প …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *