Home / আলোচিত বাংলাদেশ / খালেদাকে যাঁরা মুক্তিযোদ্ধা বলছেন, তাঁদের পাগলা গারদে পাঠানো হোক: বিচারপতি শামসুদ্দিন

খালেদাকে যাঁরা মুক্তিযোদ্ধা বলছেন, তাঁদের পাগলা গারদে পাঠানো হোক: বিচারপতি শামসুদ্দিন

খালেদা জিয়াকে দেশের প্রথম নারী মুক্তিযোদ্ধা এবং তাঁর বড় ছেলে তারেক রহমানকে শিশু মুক্তিযোদ্ধা বলেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তাঁর এই বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের নেতারা। বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্তিযোদ্ধা বলার মধ্য দিয়ে জাতিকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন সুপ্রিম

কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী। যাঁরা এ ধরনের কথা বলছেন, তাঁদের পাগলা গারদে পাঠানোর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। আজ শুক্রবার ঢাকায় এক মানববন্ধনে অংশ

নিয়ে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে ‘রাজাকারপুত্র’ আখ্যায়িত করেছেন বিচারপতি এইচ এম শামসুদ্দিন চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘মির্জা ফখরুল ইসলাম

আলমগীর আবিষ্কার করেছেন, খালেদা জিয়া নাকি মুক্তিযোদ্ধা। এই ধরনের উন্মাদ, এই ধরনের পাগল যাঁরা, এ রকম পাগলামি কথা বলে জাতিকে বিভ্রান্ত করছেন যাঁরা, তাঁদের সরাসরি পাগলা

গারদে পাঠিয়ে দেওয়া হোক। তা না হলে জাতি বিভ্রান্ত হবে।’ বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবর চন্দ্রিমা উদ্যান থেকে অপসারণের দাবিতে ওই এলাকায় আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য

দেন বিচারপতি শামসুদ্দিন চৌধুরী। ১৯৭৭ সালের ২ অক্টোবর ঢাকায় জাপানি বিমান ছিনতাইয়ের ঘটনায় তৎকালীন রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের শাসনামলে বিদ্রোহের অভিযোগে ফাঁসির দণ্ড

কার্যকর হওয়া সেনা ও বিমানবাহিনীর সদস্যদের স্বজনেরা এই মানববন্ধনের আয়োজন করেন।
মানববন্ধনে শামসুদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘আজ আমরা এখানে জমায়েত হয়েছি তাঁদের সমর্থনে, যাঁরা তাঁদের স্বামী, পিতা,

ভাইকে হারিয়েছিলেন। ১৯৭৭ সালের সেই দিনগুলোতে খুনি জিয়াউর রহমান শত শত মুক্তিযোদ্ধাকে বিচারের প্রহসনের নামে হত্যা করেছিলেন। জাপানি এয়ারলাইনসের বিমান হাইজ্যাক হওয়ার পর খুনি জিয়া যেসব মুক্তিযোদ্ধাকে খুন করেছিলেন, বিচারের নাটক সাজিয়েছিলেন সেটি আইনের কোনো অর্থেই বিচার ছিল না।

About Gazi

Check Also

অনির্দিষ্টকালের জন্য ঢাকা-ময়মনসিংহ সড়কে গণপরিবহন বন্ধ

এবার গাজীপুরের সালনা থেকে টঙ্গী পর্যন্ত ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে ধীরগতির উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের কারণে ময়মনসিংহ অঞ্চলে আগামীকাল …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *