Home / অপরাধ / ৭৫ টাকার ইনজেকশন পুশ করে ডাক্তার নেন ‘তিন হাজার’ টাকা

৭৫ টাকার ইনজেকশন পুশ করে ডাক্তার নেন ‘তিন হাজার’ টাকা

বরগুনার ডক্টরস কেয়ার ক্লিনিক অ্যান্ড হাসপাতা’লে এক চিকিৎসকের বি’রুদ্ধে ৭৫ টাকার ইনজেকশন পুশ করে তিন হাজার টাকা নেয়ার অ’ভিযোগ পাওয়া গেছে। ওই চিকিৎসকের নাম মো. শিহাব উদ্দিন শিহাব।

তিনি বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতা’লের অর্থো সার্জারি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক। অ’ভিযোগকারী আবদুর রাজ্জাক জে’লার সদর উপজে’লার লাকুরতলা এলাকার ও রিয়াজুল ইস’লাম সদর উপজে’লার কুমড়াখালী এলাকার বাসিন্দা। নিউজবাংলাকে তারা জানান,

শিহাব উদ্দিন বরগুনার কলেজ রোডের ডক্টরস কেয়ার ক্লিনিক অ্যান্ড হাসপাতা’লে প্রতি মাসে দুইবার রোগী দেখেন। সাইনোকর্ট (Cynocort) নামের একটি ইনজেকশন পুশ করতে তাদের কাছ থেকে তিন হাজার টাকা করে আদায় করেন তিনি। পরে তারা ফার্মেসিতে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, ইনজেকশটির দাম ৭০

থেকে ৭৫ টাকা। ওই চিকিৎসকের দাবি, ইনজেকশনটির দাম কম। কিন্তু এটি পুশ করতে সিনিয়র চিকিৎসকরা তিন হাজার থেকে আট হাজার টাকা পর্যন্ত নেন। রোগীর টাকা দেয়ার সাম’র্থ্য না থাকলে ফ্রিতেও পুশ করা হয়। আবদুর রাজ্জাক বলেন, ‘আমা’র স্ত্রী’ ব্রেন টিউমা’রে আ’ক্রান্ত। তার মেরুদ’ণ্ড এবং পায়ে ব্যথা।

শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে ৬০০ টাকা ভিজিট দিয়ে স্ত্রী’কে ডক্টরস কেয়ার ক্লিনিক অ্যান্ড হাসপাতা’লে চিকিৎসক শিহাব উদ্দিনকে দেখাই। ‘ডাক্তার আমা’র স্ত্রী’কে দেখে দুটি এক্স-রে এবং তিনটি র’ক্তের পরীক্ষা দেন। এ জন্য ১ হাজার ৮০০ টাকা খরচ হয়। ​পরীক্ষার রিপোর্ট নিয়ে ডাক্তারের কাছে গেলে তিনি

আমা’র স্ত্রী’কে সাইনোকর্ট (Cynocort) নামের একটি ইনজেকশন পুশ করার কথা বলেন। ভুক্তভোগী আরও বলেন, ‘ইনজেকশনটির দাম তিন হাজার টাকা উল্লেখ করে ডাক্তার বলেন, পুশ করার জন্য কোনো চার্জ দিতে হবে না। আমা’র কাছে টাকা না থাকায় আমি বাহিরে থেকে ইনজেকশনটি কিনে

পুশ করতে চাই। এ জন্য ইনজেকশনটির নাম লিখে দিতে বললে তিনি রাজি হননি। ‘ইনজেকশনের জন্য বিকাশের মাধ্যমে টাকা চান তিনি। আমি বিকাশে ডাক্তারের দেয়া নম্বরে তিন হাজার টাকা দেই। এরপর ডাক্তার নিজেই আমা’র স্ত্রী’কে ইনজেকশন পুশ করেন। ‘পরে আমি ফার্মেসিতে গিয়ে ইনজেকশনটির দাম জেনে অ’বাক হই। একজন চিকিৎসকের এ কেমন প্রতারণা, তা

কিছুতেই বুঝতে পারছি না। এই ঘটনায় ওই চিকিৎসকের বিচার চান আবদুর রাজ্জাক। মো. রিয়াজুল ইস’লাম বলেন, ‘শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে আমি আমা’র স্ত্রী’র বোনকে নিয়ে শিহাব উদ্দিন ডাক্তারের কাছে যাই। তিনি একটি এক্স-রেসহ চারটি টেস্ট দেন। এ টেস্টের জন্য এক হাজার ৭৫০ টাকা খরচ হয়। ‘বেলা ২টার দিকে টেস্টের রিপোর্ট নিয়ে ডাক্তারের কাছে গেলে রোগীকে সাইনোকর্ট নামের ইনজেকশন পুশ করতে হবে বলে জানান।

এর দাম জানতে চাইলে তিন হাজার টাকা বলে জানান তিনি।
রিয়াজুল বলেন, ‘আমি তিন হাজার টাকা দিলে ডাক্তারের টেবিলে থাকা ইনজেকশন ডাক্তার নিজেই পুশ করে দেন। পরে অন্য ফার্মেসিতে গিয়ে জানতে পারি, এই ইনজেকশনের দাম ৭০ থেকে ৭৫ টাকা। অ’ভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে চিকিৎসক মো. শিহাব উদ্দিন শিহাব মোবাইল ফোনে বলেন, ‘সাইনোকর্ট

ইনজেকশনটির দাম কম। বাহিরে এটি ৫-৬ শ টাকায় পুশ করা হয়। তবে এটি পুশ করতে সিনিয়র চিকিৎসকরা তিন হাজার টাকা থেকে আট হাজার টাকা পর্যন্ত নেন। আবার গরিব রোগীদের ফ্রিতেও পুশ করা হয়। এ বিষয়ে ডক্টরস কেয়ার ক্লিনিক অ্যান্ড হাসপাতা’লের ব্যবস্থাপক মো. ইব্রাহীম বলেন, ‘সাইনোকর্ট নামের ইনজেকশনটির দাম ৭৫ টাকা। এটার দামসহ পুশ করার জন্য ডা. শিহাব উদ্দিন তিন হাজার টাকা নেন। ‘এই ইনজেকশন তার

কাছেই থাকে। এই ইনজেকশনের কথা ব্যবস্থাপত্রে উল্লেখ করা হয় না। তবে এই টাকার কোনো ভাগ ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ পায় না।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে একজন চিকিৎসক বলেন, ‘এই ইনজেকশন পুশ করার জন্য ঢাকাতেও ৬-৮ শ টাকা নেয়া হয়। সিনিয়র ও উচ্চ ডিগ্রিধারী চিকিৎসরাও

এই ইনজেকশন পুশ করার জন্য এক হাজার টাকার বেশি নেয় বলে জানা নেই। এ বিষয়ে বরগুনা সিভিল সার্জন ডা. মুহাম্ম’দ ফজলুল হক বলেন, ‘বিষয়টি আম’রা খতিয়ে দেখব। অ’ভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

About Gazi

Check Also

বান্দরবানে স্ত্রী খুন, নিখোঁজ স্বামী; স্থানীয়রা বলছেন ‘নাটক’

বান্দরবানে সদর উপজেলার থংজমা পাড়ায় সিং ম্যা নু মার্মা নামে এক নারী হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *